যুক্তরাষ্ট্রের ৪৬তম প্রেসিডেন্ট হলেন জো বাইডেন

যুক্তরাষ্ট্রের ৪৬তম প্রেসিডেন্ট হলেন জো বাইডেন

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: তিন তিনটা দিন রুদ্ধশ্বাস অপেক্ষা। সারা পৃথিবী উন্মুখ হয়ে অপেক্ষা করছিল নতুন মার্কিন প্রেসিডেন্টকে বরণ করবার জন্য। এবার সেই অপেক্ষার অবসান ঘটলো। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ৪৬তম প্রেসিডেন্ট হিসেবে নির্বাচিত হলেন জো বাইডেন। তার দল ডেমোক্রেটিক পার্টির সমর্থকরা এই সাফল্য উদযাপন শুরু করে দিয়েছেন। এছাড়া পৃথিবীর বিভিন্ন প্রান্ত থেকে আসা অভিনন্দন বার্তায় সিক্ত হচ্ছেন নতুন প্রেসিডেন্ট।

এক জয়ে অনেক রেকর্ডের মালিক হলেন বাইডেন। যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে সবচেয়ে বেশি বয়সে প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হওয়ার ইতিহাস গড়লেন তিনি। প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের ইতিহাসে সর্বোচ্চ পপুলার ভোট পাওয়ার ইতিহাসও এখন তার দখলে। রানিংমেট কমলা হ্যারিসও যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে প্রথম নারী ভাইস প্রেসিডেন্ট।

জো বাইডেন ডেলাওয়ারের নিউ ক্যাসল কাউন্টির কাউন্সিলম্যান নির্বাচিত হন ১৯৭০ সালে। সাফল্যের পিচ্ছিল সিঁড়িটি মসৃণ করার জাদুমন্ত্র শিখে ফেলেন তখনই। ১৯৭২ সালের নভেম্বরে ওই সময়ের জনপ্রিয় রিপাবলিকান সিনেটর স্যালেব বগসের বিপক্ষে ডেমোক্রেটিক দল থেকে প্রার্থী হন। তারপর নাম লেখান ইতিহাসে। মাত্র ৩০ বছর বয়সে তিনি যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে সবচেয়ে কম বয়সী পঞ্চম সিনেটর নির্বাচিত হন।

এই ডেলাওয়ার থেকে মোট ছয়বার সিনেটর নির্বাচিত হন জো বাইডেন। বাইডেনের সেরা কৃতিত্বের মধ্যে অন্যতম হলো, নারীর বিরুদ্ধে সহিংসতা আইনসহ যুক্তরাষ্ট্রের গুরুত্বপূর্ণ কয়েকটি আইন প্রণয়ন করেন তিনি।

২০০৮ সালের নির্বাচনে ডেমোক্রেটিক পার্টি থেকে প্রার্থী হতে চেয়েছিলেন বাইডেন। কিন্তু সেবার প্রার্থী হয়ে জয়লাভ করেন বারাক ওবামা। তবে ওবামা পুরোপুরি হতাশ করেননি বাইডেনকে, রানিংমেট হিসেবে বেছে নেন জো বাইডেনকে। ২০০৯ থেকে ২০১৭ সাল পর্যন্ত এই দীর্ঘ সময় তিনি ভাইস প্রেসিডেন্টের দায়িত্ব পালন করেন।

এর মধ্যে ২০১৫ সালে বড় ধরণের ঝড় আসে বাইডেনের জীবনে। ব্রেন ক্যানসারে আক্রান্ত হয়ে বড় ছেলে বিউ বাইডেন মারা যান। সন্তানের মৃত্যুতে পুরোপুরি ভেঙে পড়েন তিনি। ২০১৬ সালের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ডেমোক্রেটিক পার্টির মনোনয়ন পাওয়ার আগেই নিজেকে সরিয়ে নেন প্রার্থীতা থেকে।


একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে